Desher Khobor

১৪ দিনের শিশুকে রেখে পালিয়ে গেলেন মা

Loading...

চাঁদপুরের সরকারি জেনারেল হাসপাতালে ১৪দিনের নবজাতককে রেখে পালিয়ে গেছেন এক মা। শুক্রবার (৬ ডিসেম্বর) দুপুরে হাসপাতালটির শিশু ওয়ার্ডে এ ঘটনা ঘটে। বর্তমানে শিশুটির চিকিৎসা চলছে ওই হাসপাতালে। হাসপাতালের জ্যেষ্ঠ নার্স মুক্তি রানী দাস জানান, “গত ১৪ দিন আগে এই শিশুটির জন্ম হয় এই হাসপাতালে। চারদিন প্রসূতি ও নবজাতক একসঙ্গে ছিলেন। পরে চলেও যায় তারা। কিন্তু ঠাণ্ডাজনিত সমস্যা নিয়ে আবারও শিশুটিকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তারপর শুক্রবার রাতে শিশুটি রেখে মা চলে যান। তবে চাঁদপুর সদরের শাহতলী গ্রামের নাম-ঠিকানা ব্যবহার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হলেও ওই ঠিকানায় তাদের কোনও অস্তিত্ব খুঁজে পাওয়া যায়নি।” ধারণা করা হচ্ছে, ওই নারী তার সঠিক পরিচয় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে প্রদান করেননি। ফলে শিশুটিকে নিয়ে বেকায়দায় পড়েছেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। চাঁদপুর মডেল থানার উপ-পরিদর্শক(এসআই) রাশেদুজ্জামান বলেন, “শিশুটির বিষয়টি সমাজসেবা অধিদপ্তরে জানানো হয়েছে। বর্তমানে সে সমাজসেবা অধিদপ্তরের তত্ত্বাবধানে চিকিৎসাধীন রয়েছে।”

Loading...

চাঁদপুর জেনারেল হাসপাতালের শিশু বিশেষজ্ঞ ডা. আব্দুল আজিজ জানান, “অপরিণত বয়সে জন্ম নেওয়া শিশুটির শারীরিক অপূর্ণতা থাকলেও এখন ভালো সেবা পেয়ে দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠতে শুরু করেছে।” চাঁদপুর সমাজসেবা অধিদপ্তরের কর্মকর্তা মনিরুল ইসলাম বলেন, এ বিষয়টি জেলা শিশু কল্যাণ বোর্ডে উপস্থাপন করা হয়েছে। বোর্ড থেকে যে সিদ্ধান্ত দেয়া হবে সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে। এদিকে, হাসপাতালে ফেলে যাওয়া শিশুটিকে দত্তক নিতে অনেকেই আগ্রহ দেখাচ্ছেন। ইতিমধ্যে একজন মা তার বুকের দুধ খাওয়াতে শুরু করেছেন বলেও খবর পাওয়া গেছে। গত তিন ধরে শিশুটির দেখাশোনা করা হাসপাতালে নার্স ও কুলসুমা বেগম নামের এক নারী। শিশুটিকে দেখাশোনাকারী কুলসুমা বেগম বলেন, “আমি শিশুটিকে মায়ের আদর স্নেহ দিয়ে লালন-পালন করছি। তাকে পালনের জন্য হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে বলেছি কিন্তু তারা কোনো সিদ্ধান্ত জানাননি।”

Loading...

Comment here